কমলগঞ্জের মৌলভীবাজার-৪ আসনের সংসদ

কমলগঞ্জের মৌলভীবাজার-৪ আসনের সংসদ , সদস্য এম এ শহীদের ওপর হামলা হয়েছে। রোববার রাত

সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার মুন্সীবাজারে এ ঘটনা ঘটে। রহিমপুর ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে আওয়ামী

লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী জুনেল আহমেদ তরফদারের সমর্থকরা এ হামলা চালিয়েছে বলে দাবি করেন এমপি।হামলায়

এমপি নিহত না হলেও তার ব্যক্তিগত সহকারী (পিএস), গানম্যানসহ পাঁচজন আহত হয়েছেন। এদিকে হামলার

পর নৌকার প্রার্থী ও বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। রহিমপুর ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী

লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন এমপি শহীদের ভাই ইফতেখার আহমেদ। ইফতেখারের প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট

ইমতিয়াজ আহমেদ গতকাল রাতে কমলগঞ্জ থানায় ৩৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন।ইমতিয়াজ আহমেদ

কমলগঞ্জের মৌলভীবাজার-৪ আসনের সংসদ

জানান, গত রাত সাড়ে ৯টার দিকে একটি প্রাইভেটকারে মুন্সিবাজারে তার ভাই ইফতেখার আহমেদের নির্বাচনী কার্যালয়ে যান সাংসদ শহীদ। তবে ইফতেখার ওই সময় ভোটকেন্দ্রে না থাকায় তার ভাই অপেক্ষায় বসে ছিলেন। এ সময় বিদ্রোহী জুনেল আহমেদের নির্দেশে তার সমর্থকরা এমপির ওপর হামলার চেষ্টা করে। এ সময় তার ভাইয়ের পিএস ইমাম হোসেন, বন্দুকধারীসহ পাঁচজন গুরুতর আহত হন।এ প্রসঙ্গে এমপি এম এ শহীদ প্রথম আলোকে বলেন, গতকাল সন্ধ্যায় শমশেরনগরে তার এক ছাত্রের বাড়িতে ব্যক্তিগত সফরে গিয়েছিলেন তিনি। সেখান থেকে গ্রামের বাড়ি সিদ্ধেশ্বরপুর হয়ে শ্রীমঙ্গলে ফেরার পথে ছোট ভাইয়ের সঙ্গে দেখা করতে যান তিনি। জুনেল আহমেদের নির্দেশে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে এ হামলা চালানো হয়। তিনি দৃঢ়তার সাথে বলেছিলেন যে তার স্বীকারোক্তি

নির্যাতনের মাধ্যমে প্রাপ্ত হয়েছিল

নির্যাতনের মাধ্যমে প্রাপ্ত হয়েছিল এবং তার স্বীকারোক্তি নির্যাতনের মাধ্যমে প্রাপ্ত হয়েছিল।এদিকে হামলার খবর পেয়ে চেয়ারম্যান প্রার্থী ইফতেখার আহমেদসহ সমর্থকরা ঘটনাস্থলে আসেন। এরপর ইফতেখার ও জুনেল আহমেদের সমর্থকরা বেশ কয়েকবার একে অপরকে ধাওয়া দেয়। খবর পেয়ে কমলগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সোহেল রানার নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।হামলার অভিযোগ অস্বীকার করে জুনেল আহমেদ বলেন, নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে প্রভাব বিস্তার করতে চেয়েছিলেন এমপি। তিনি হামলার সঙ্গে জড়িত ছিলেন না। তিনি হামলার নির্দেশ দেননি। এতে স্থানীয় লোকজন ক্ষুব্ধ হয়ে এ ঘটনা ঘটায়।পরিদর্শক সোহেল রানা জানান, মামলায় ৩৫ জনকে আসামি করা হয়েছে। তদন্তের স্বার্থে এ মুহূর্তে কারো নাম প্রকাশ করা যাচ্ছে না। ঘটনার তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরো পড়ুন 

About work

Check Also

গত বৃহস্পতিবার সিরাজগঞ্জে আওয়ামী লীগ-বিএনপি

গত বৃহস্পতিবার সিরাজগঞ্জে আওয়ামী লীগ-বিএনপি

গত বৃহস্পতিবার সিরাজগঞ্জে আওয়ামী লীগ-বিএনপি , সংঘর্ষের সময় হাতে আগ্নেয়াস্ত্রসহ চারজনকে শনাক্ত করতে পারেনি পুলিশ। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.