বাধ্যতামূলক অবসর নিয়ে যা বললেন সিআইডি কর্মকর্তা ওমর ফারুক!

নজর২৪ ডেস্ক- পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) অতিরিক্ত উপ-পুলিশ মহাপরিদর্শক (অতিরিক্ত ডিআইজি) শেখ ওমর ফারুককে বাধ্যতামূলক অবসরে পাঠিয়েছে সরকার।

সিআইডির ঢাকা মেট্রো উত্তরের দায়িত্বে থাকা ফারুক আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমনি এবং মডেল মৌ ও পিয়াসার বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া মামলাগুলোর তত্ত্বাবধান করছিলেন।

তার পাশাপাশি পুলিশ সুপার (এসপি) পদমর্যাদার আরও এক কর্মকর্তাকে বাধ্যতামূলক অবসর দেওয়া হয়েছে। তিনি খাগড়াছড়ির মহালছড়ির এপিবিএন ৬-এর অধিনায়ক মো. আবদুর রহিম।

বৃহস্পতিবার (২ সেপ্টেম্বর) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের উপসচিব ধনঞ্জয় দাসের সই করা প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, চাকরি ২৫ বছর পূর্ণ হওয়ায় সরকারি চাকরি ২০১৮ (২০১৮ সালের ৫৭ নং আইন)-এর ৪৫ ধারার বিধান অনুযায়ী জনস্বার্থে তাদের সরকারি চাকরি থেকে অবসর প্রদান করা হলো। কর্মকর্তারা বিধি মোতাবেক অবসরজনিত সব সুবিধা পাবেন।

জননিরাপত্তা বিভাগ থেকে বিসিএস ১২তম ব্যাচের এ দুই কর্মকর্তার অবসর-সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারির পর থেকেই বিষয়টি সবমহলের আলোচনায় রয়েছে। বিশেষত ওমর ফারুককে কেন বাধ্যতামূলক অবসরে পাঠানো হলো, সে প্রশ্নের উত্তর খুঁজছেন সবাই।

ওমর ফারুকের গ্রামের বাড়ি বাগেরহাট। ১৯৯১ সালের ২০ জানুয়ারি চাকরিতে যোগদান করেন। এরই মধ্যে প্রায় ২৯ বছর চাকরি করেছেন তিনি।

কী কারণে বাধ্যতামূলক অবসরে পাঠানো হয়েছে জানতে চাইলে শেখ ওমর ফারুক বলেন, ‘এ অবসরের কারণের বিষয়ে কেউ কিছু বলেনি আমাকে। সরকারি কর্মকর্তাদের ২০-২৫ বছর চাকরির বয়স হয়ে গেলে সরকার যদি মনে করে অবসরে পাঠাবে তা করতেই পারে। এছাড়া অবসরের অন্য কোনো কারণ আছে কি-না আমার জানা নেই।’

About desk

Check Also

বাংলাদেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স এল জুলাইয়ে

মহামারী করো’না ভাইরাসে সারা বিশ্ব বিপর্যস্ত। বাংলাদেশও আক্রান্ত। কিন্তু এই পরিস্থিতির মধ্যেই প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্সে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Recent Comments

No comments to show.